৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি – ই রিকুইজিশনের টাকা পরিশোধ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি

চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি : আবেদন ফি কমাতে যাচ্ছে এনটিআরসিএ

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি – ই রিকুইজিশনের টাকা পরিশোধ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি: এতদ্বারা সংশ্লিষ্ট সকল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্কুল-কলেজ কারিগরি ও মাদ্রাসা প্রধানগণের দৃষ্টি আকর্ষণ পূর্বক জানানো যাচ্ছে যে ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তির আওতায় অধিযাচন দাখিল এর সর্বশেষ সময় সীমা 14/ 8 /2022 খ্রিস্টাব্দ তারিখ পর্যন্ত নির্ধারিত ছিল নির্ধারিত তারিখের মধ্যে যে সকল প্রতিষ্ঠানের প্রধান সাবমিট করার পর টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়েছেন, তাদের আগামী 24 তারিখ বিকাল 5 ঘটিকার মধ্যে সরাসরি বা হাতে হাতে এনটিআরসি এর কার্যালয় নিম্নবর্ণিত ছকে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আবেদন জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এনটিআরসিএ প্রদত্ত নোটিশ নিচে দেয়া হলঃ

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি - ই রিকুইজিশনের টাকা পরিশোধ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে।।ইতিমধ্যেই শূন্যপদে তথ্য সংগ্রহ শেষ হয়েছে।

ইনডেক্সধারীদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন আসছে

প্রথাগত বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সহজ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। চতুর্থ ধাপে, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) সূচীধারী শিক্ষকদের জন্য একটি পৃথক প্রক্রিয়ার বিষয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেছে, অর্থাৎ যেসব শিক্ষক ইতিমধ্যে এমপিওভুক্ত রয়েছেন। দীপু মনির সঙ্গেও আলোচনা করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা.

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উচ্চপর্যায় থেকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুমোদন পাওয়া গেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। একটি পৃথক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সূচক ধারকদের নিয়োগের জন্য একটি অনলাইন আবেদন গ্রহণকারী সংস্থা টেলিটকের সাথেও আলোচনা এগিয়েছে।

এনটিআরসিএর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দৈনিক আমাদের বার্তাকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। কিছু কিছু বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন লাগে। এবং টেলিটকের একটি পৃথক প্রক্রিয়ায় তালিকাভুক্ত শিক্ষক এবং নিবন্ধিত শিক্ষক নিয়োগের ক্ষমতা আছে কি না তা নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে তারা আশাবাদী যে, চতুর্থ ধাপে পৃথক প্রক্রিয়ায় সূচিভুক্ত শিক্ষক ও নিবন্ধিত প্রার্থীদের নিয়োগের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

ইনডেক্সধারীদের নিয়োগ প্রক্রিয়া

জানা গেছে, এতদিন সূচিধারী অর্থাৎ এমপিও শিক্ষকরা এনটিআরসিএর গণবিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী সরাসরি নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আবেদনের সুযোগ পেতেন। এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বদলির ব্যবস্থা না থাকায় এমপিও নীতিমালায় তাদের জন্য এ সুযোগ রাখা হয়েছে। তাদের বদলির জন্য আলাদা নীতিমালার কথা বলা হলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। কিন্তু এমপিও বা সূচিভুক্ত শিক্ষক যারা বাড়ি থেকে অনেক দূরে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন, তাদের জন্য এমপিও নীতিমালায় নতুন প্রতিষ্ঠানে পুনর্নিয়োগ পাওয়ার বিধান রাখা হয়েছে। সে অনুযায়ী সূচক বা এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা একই পদে বা একই স্কেলে নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে এমপিও নীতিমালার এই বিধানে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আবেদন করা হাজার হাজার শিক্ষককে নিয়োগের সুপারিশ করেছে এনটিআরসিএ। কিন্তু এর ফলে অনেক নিবন্ধিত প্রার্থী নিয়োগ পাননি। আবার সুপারিশ পেয়ে নতুন প্রতিষ্ঠানে যোগদানকারী তালিকাভুক্ত শিক্ষকদের আগের পদ শূন্য রয়েছে। এতে শিক্ষার সার্বিক মান উন্নয়ন হচ্ছে না। তাই নিবন্ধিত প্রার্থীরা সূচক হোল্ডারদের জন্য আলাদা নিয়োগ প্রক্রিয়ার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এনটিআরসিএ আলাদা নিয়োগের কথা ভাবতে শুরু করেছে।

About adminbd

John Romeo is a content writer.

View all posts by adminbd →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *